Reddit টিপস এন্ড ট্রিক্স

অনলাইন ব্যবসায়ের জন্য একটি বড় ধরণের ট্রাফিকের সোর্স হল রেডিট। বিশেষ করে আপনি যদি USA কে টার্গেট করে কাজ করেন তাহলে অবশ্যই রেডিট নিয়ে কাজ করা উচিত। যদি একটি পোষ্ট র‍্যাঙ্ক করতে পারেন তাহলে চিন্তাও করতে পারবেন না কি পরিমান ভিজিটর পাবেন।আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন হল ভিজিটরের ক্ষেত্রে সবচেয়ে মুল্যবান ভিজিটর হল ইউএসএ ভিজিটর। রেডিট হল ইউএসএ ভিজিটরের সবচেয়ে বড় সোর্স।

তবে এই সোশ্যাল নেটওয়ার্ক অন্যান্য সোশ্যাল নেটওয়ার্কের মত না। এখানে খুব ছোট একটি ভুলের জন্যও আপনার একাউন্ট নিষিদ্ব হয়ে যেতে পারে। কারণ রেডিট ব্যবহারকারীরা কোন মার্কেটার পছন্দ করে না। তাই রেডিটে মার্কেটিং করতে হলে সব জেনে শুনে বুঝে বিভিন্ন কৌশলে মার্কেটিং করতে হবে।

রেডিটে মার্কেটিং করতে হলে আপনাকে লিঙ্ক কারমা এবং কমেন্ট কারমা বৃদ্ধি করতে হবে। লিঙ্ক কারমা হল আপনার পোষ্টে আপভোট হলে লিঙ্ক কারমা বৃদ্ধি পায়। আর কমেন্টে আপভোট হলে কমেন্ট কারমা বৃদ্ধি পায়। আপনার যত বেশি কারমা বৃদ্ধি পাবে অন্যন্য রেডিটর আপনাকে তত বেশি লক্ষ্য করবে, যোগাযোগ করবে এবং আপনার পোষ্ট র‍্যাঙ্ক করার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পাবে।

রেডিটে মার্কেটিং করার কিছু গুরুত্বপূর্ন পয়েন্ট উল্লেখ করা হলঃ

১.  সঠিকভাবে প্রোফাইল তৈরি করুনঃ

রেডিটে পোষ্টের পূর্বে প্রথমে আপনার প্রোফাইলকে ন্যাচারাল প্রোফাইল হিসেবে তৈরি করুন। এর জন্য খুব ভালো ভালো কন্টেন্ট পোষ্ট করুন। লিঙ্ক পোষ্ট করলে যা বড় এবং বিশ্বস্ত ওয়েবসাইটের সাথে যুক্ত তা পোষ্ট করুন। তাহলে আপনার কারমা পয়েন্ট বৃদ্ধি পাবে। অন্যের পোষ্টে কোয়ালিটি সম্পন্ন কমেন্ট দিন যা অন্যরা পড়বে এবং পছন্দ করবে। তবে একাউন্ট খোলার সাথে সাথে লিঙ্ক পোষ্ট করবেন না। এক সপ্তাহ পর থেকে লিঙ্ক পোষ্ট করুন।

২.  প্রসঙ্গিক পোষ্ট করুনঃ

রেডিট হলো ট্রাফিকের একটি বড় সোর্স। কিন্তু আপনি যদি রেডিট থেকে ভিজিটর পেতে চান তাহলে প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে পোষ্ট করতে হবে। তাই সাব রেডিট অনুসারে পোষ্ট করুন। আপনার কন্টেন্ট যত বেশি সাব রেডিটের সাথে মিল থাকবে তত বেশি ভিজিটর পাবেন।

রেডিটে পোষ্ট করার আগে রিসার্চ করুন। কোন ধরণের টপিক গুলো রেডিটে বেশি জনপ্রিয় তা জানার চেষ্টা  করুন। তারপর সেই টপিকের উপর ভিত্তি করে সাব রেডিটে আপনার কন্টেন্ট পোষ্ট করুন।

৩.  কোয়ালিটি পোষ্ট করুনঃ

রেডিটে পোষ্ট করার পূর্বে একটি বিষয় সর্বদা মনে রাখবেন। সেই সকল কন্টেন্টই পোষ্ট করুন যা মানুষ পছন্দ করবে অর্থাৎ কোয়ালিটিপূর্ন কন্টেন্ট পোষ্ট করুন। তা নাহলে আপনার পোষ্ট গুলো কোন কাজে আসবে না। শুধু সময় নষ্ট হবে।

৪.  মার্কেটার হওয়ার চেয়ে রেডিটর হোনঃ

রেডিটে মার্কেটার হওয়ার চেয়ে বেশি গুরুত্বপূরর্ন রেডিটর হওয়া। সাধারণ ব্যবহারকারীর মত রেডিটকে ব্যবহার করার চেষ্টা করুন। অন্য পোষ্টে বিভিন্ন উপকারী বা মজার কমেন্টের মাধ্যমে কমেন্ট কারমা বৃদ্ধি করুন। পোষ্ট হিস্টোরি বৃদ্ধি করে নিজেকে সাধারন ব্যবহারকারীতে পরিনত করুন।

কখনই প্রথম পোষ্টি প্রচারমূলক পোষ্ট করবেন না।

৫.  বড় টাইটেল লিখুনঃ

আপনার পোষ্টের জন্য বড় টাইটেল লিখুন। যেসকল পোষ্টের টাইটেল গুলো বড় এবং গুরুত্বপূর্ন তথ্য সম্বলিত হয় সেই পোষ্ট রেডিটে ভালো কাজ করে।

৬.  পোষ্ট শেয়ার করুনঃ

রেডিটের পোষ্টের আপভোট বৃদ্ধি করতে টুইটার এবং ফেসবুকে শেয়ার করুন। ফেসবুক এবং টুইটারে আপনার যে ফ্রেন্ড রয়েছে সে ফ্রেন্ডদের কাছে রেডিট পোষ্ট শেয়ার করলে, যাদের রেডিট একাউন্ট রয়েছে সেই ফ্রেন্ড্ররা তা পড়বে এবং পোষ্ট ভালো হলে আপভোট করবে, কমেন্ট করবে।

৭.  কমেন্টের উত্তর দিনঃ

যখন আপনার রেডিট পোষ্টে অন্যরা কমেন্ট করবে তাদের কমেন্টের উত্তর দিন। এর ফলে পোষ্টের কমেন্ট বেশি কাউন্ট হবে। বেশি কমেন্ট কাউন্ট দেখে অন্যরাও কনভারসেশনে যোগদান করবে।

কিছু কাজ থেকে বিরত থাকুনঃ

রেডিটে খুব সহজেই একটি আইডি নিষিদ্দ্ব হয়ে যায়। তাই নিচের কাজ গুলো করা থেকে বিরত থাকুন।

১। এক কন্টেন্ট রেডিটে পোষ্ট হয়ে গেলে তা আবার পোষ্ট করবেন না।

২। কোন পোষ্ট করার আগে দেখুন তা পূর্বে পোষ্ট করা হয়েছে কিনা।

৩। কাউকে আপভোটের জন্য আবেদন করবেন না।

৪। রেডিটের জন্য কোন প্রকার বট বা রোবট সফটওয়্যার ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

৫। কারো প্রাইভেট কন্টেন্ট প্রকাশ করবেন না।

৬। বেআইনি কন্টেন্ট রেডিটে প্রকাশ করবেন না।

এগুলো খুব গুরুত্বপূর্ন বিষয়। এগুলো ছাড়াও আরো আরো অনেক বিষয় রয়েছে। রেডিটের টার্মস এবং কন্ডিশন থেকে তা পড়ে নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

\